বাংলাদেশের সাম্প্রতিক সাফল্য যাদের চোখে পড়ে না তারা হয় অন্ধ না হয় জ্ঞানপাপী

সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশ দেশ যেসব সাফল্য অর্জন করেছে তা দক্ষিণ এশিয়ার অনেক দেশই করতে পারেনি। এটি নিঃসন্দেহে আমরা যারা দেশকে ভালোবাসি তাদের জন্য অবশ্যই গৌরবের। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, যোগোযোগ ভৌত অবকাঠামো বিদ্যুত, জ্বালানী খনিজসম্পদ, নারীর ক্ষমতায়ন বড় বড় দুইটি বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার পর সদ্য সমাপ্ত অর্থবৎসরে ৬.০৩ জিডিপি অর্জনস, মানবসম্পদ উন্নয়ন, ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টি, ২ হাজার

পারলে তাদের একটা কোপ দেন দেখি...

টিএসসিতে চায়ের অর্ডার দিয়ে দাড়িয়েছিলাম বন্ধুরা মিলে। হঠাত একটা হাতবোমা টাইপ কিছু ফুটলো বলে মনে হলো, পরে হয়ত আরো কয়েকটা ফুটোলো। টিএসসিতে শব্দ হলে যা হয় আর কী,সবাই মিলে দৌড়ানো শুরু করলো। সাথে এক বন্ধু ছিলো একটু ঘাওড়া কিছিমের।সে প্রস্তাব দিলো চা খেয়েই যেতে হবে,বোমাওয়ালারা কাছে আসলে পরে দৌড়ানো যাবে। নিজেকে ভীতু প্রমান করার আগ্রহ কোনোকালেই থাকেনা মানুষের। বোমার ভয়ে তটস্থ থেকেও তাই সবাই চা খেলাম আর মনে

লেখালেখি বনাম সময়ের ক্যালকুলাস! লেখালেখির একাল সেকালঃ লেখক যখন ব্লগার কিংবা লেখক বনাম ব্লগার...!

লেখালেখি আর সময়ের ক্যালকুলাসটা বড় অদ্ভুত। সময় বয়ে চলছে দ্রুততর গতিতে দৃপ্তভাবে। আর লেখালেখির জগতে তার গতি ক্ষিপ্রতা কিংবা বহুরুপিতা যেন আরোও প্রাঞ্জল আরোও প্রকট। নবীন লেখকদের সাহিত্যচর্চা এখন অনেকটাই হয়ে গেছে অনলাইন নির্ভর। কবিতার খাতা মুড়ে কবিতা লেখাটা হয়ে ওঠেনা আর... ডায়েরীর পাতাগুলো যেন মলিন শুকনো পড়ে রয় ....

একুশ আগস্টের গ্রেনেড হামলায় হাওয়াভবন ও বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সংশ্লিষ্টতা

মাহবুবুল আলম

১৫ আগষ্ট রাতে তিনটি বাড়িতে যাদের যেভাবে হত্যা করা হয়।

মেজর মহিউদ্দিনের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর বাড়ি আক্রমণের ** দায়িত্ব ভার গ্রহন করেন।
ভোর সারে পাচটার দিকে হত্যা কান্ড সুরু করেন।

১) প্রথমেই বজলুল হুদার ব্রাসফায়ারে পাঁয়ে আঘাত পান পরে তাকে ব্রাসফায়ার করে এবং ঐ স্থানেই শেখ কামাল মারা যান। ঐ সময় ডিএসপি নুরুল ইসলামের পায়ে ও বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তগত সহকারি মহিতুলের হাঁটুতে একটি করে গুলি লাগে। (বাড়ির নিচ তলায়)

চাইছি তোমার বন্ধুতা – ২

(১)

ঝিরি ঝিরি বৃষ্টিতে ভিজছিল ওর শরীর। সে দাঁড়িয়ে ছিল আমাদের সামনেই, ডান দিকে।

ফৌজদারি মামলা পরিচালনায় আইনজীবীর নৈতিক ও পেশাগত কর্তব্য!

কিছু লিখিত-অলিখিত নৈতিকতা সব আইনজীবীরই থাকা উচিত। ফৌজদারি বিচারব্যবস্থার অবিচ্ছেদ্য অংশ অভিযুক্ত পক্ষের আইনজীবী (ডিফেন্স ল ইয়ার) ও সরকারি পক্ষের কেঁৗসুলির (প্রসিকিউটর) জন্য পেশাগত জীবনে অবশ্যপালনীয় নীতিমালা হিসেবে বিভিন্ন উৎস থেকে উৎপত্তি হয়েছে। কমন ল-ভুক্ত রাষ্ট্রগুলোয় বিদ্যমান বিচারব্যবস্থায় বিভিন্ন বিচারিক নজির, সংবিধি অথবা নিয়ন্ত্রণকারী আইনজীবী সংগঠন (বার কাউন্সিল/অ্যাসোসিয়েশন) কর্তৃক নির্ধার

একটি সাধারণ গল্প

শহরটা ছোট। মফস্বল যেমন হয় আর কি। দু তিনটে হলুদরঙা সরকারি বিল্ডিং ছাড়া দোতলার উপর বাড়ি খুঁজে পাওয়া কঠিন। ভোরবেলা রাস্তায় মানুষজন এমনিতেই কম থাকে। আর শীতকালে তো জনমানবশুন্য। এধরণের শহরে বড় রাস্তা থাকে একটাই। সেটার দুদিকেই শহর গড়ে উঠে। কুয়াশার চাদর ভেদ করে জুবুথুবু হয়ে হেঁটে আসছে যুবক। সামনে কামারপাড়া মোড়। মোড় ঘুরলেই তার বাড়ি। মফস্বলের “এলিট ক্লাস” বলে একটা ব্যাপার আছে। তার বাবা তাদের মধ্যে পড়েন বলা

সেরনিয়াবাত পরিবারের স্বজন হারানোর দুঃসহ বেদনার স্মৃতি কথা।

ভয়াল ও আতংকের সেই কালো রাত্রির রক্তাক্ত অধ্যায় ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট খুনী চক্র সর্ব প্রথম হামলা করে সেরনিয়াবাত পরিবারের উপর ভোর সোয়া পাঁচ টায় কৃষকলীগের প্রতিষ্টাতা ও ততকালীন মন্ত্রী প্রয়াত আব্দুর রব সেরনিয়াবাতের ২৭ মিন্টু রোডের বাসভবনে। Blood and Quick Execution এর পরিকল্পনা মাফিক সেনা বাহিনীহতে বহিস্কৃত মেজর ডালিম এ হামলার নেতৃত্ব দেন। খুনী চক্র এ হত্যাকান্ড সফল ভাবে সম্পন্ন করতে হেভী মেশিনগান সংয

বাংলাদেশে ভিক্ষাবৃত্তিঃ কারণ ও প্রতিকার

তুমি না এলে কান্না আসুক

কিছু না হলে বৃষ্টি নামুক ,তুমি না এলে কান্না আসুক -
শব্দের শূন্যস্থানে বৃষ্টির জল বারান্দা ভিজিয়ে দিলো অকস্মাৎ ,
আহ ! তাই যেন হয় ।

দরজায় কেউ কড়া নাড়ে না - দরজায় এখন কড়া নেই ।
কলিং বেল'র কর্কশ আওয়াজ কানে বাজে -
দুধওয়ালা বা বিলের লোক , এর বেশি কেউ অপেক্ষায় নেই ।

এখন আমার ঘরে ছিঁড়া কোন সোফা নেই
চায়ের কাপে রঙ নেই , একা রুমে কেউ নেই ।
বইয়ের সেলফে ঝুল নেই , শো পিসের পুতুলের

ব্যবসায় উদ্যোগ

চায়ের দোকানের সামনেই মহল্লার ছোটভাই রুহুল কে দেখে থমকে দাঁড়ালাম। উদ্দেশ্য যদিও ছিল চা পানের, কিন্তু সামনের এই মূর্তিমান আপদ দেখে পাশের সিএনজির পেছনে লুকিয়ে পরবো, ধরা পরে গেলাম! আমাকে দেখে রুহুল চোখমুখ শক্ত করে চেহারায় ভীষণ সিরিয়াস একটা ভাব এনে দোকানের ভেতরে নিয়ে গেল।

সবার কাছে প্রিয় হতে চাইলে-

বন্ধুদের আড্ডায় হোক বা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম, মানুষ নিজের সম্পর্কে বলতে পছন্দ করেন। মানুষ সব সময় ভালো শ্রোতাকে পছন্দ করেন। বক্তা যা বলছেন, তার বাক্যের শেষ দুটি বা তিনটি শব্দ যদি আপনি বলেন তবে বক্তা মনোযোগী শ্রোতা হিসেবে আপনার প্রতি ইতিবাচক হয়ে উঠবেন। পরচর্চার কাজটা ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিতে করুন। তাহলে, আপনার প্রতি অন্যের দৃষ্টিভঙ্গি ভালো থাকবে। কিছু বুঝতে না পারলে তা অন্যের কাছ থেকে প্রশ্ন করে জেনে ন

হুজুর এখন আর তাবলিকে আসেন কেন?

সকালের নাস্তা করার পর নবীন হুজুর, জেষ্ঠ্য হুজুরের পাশে গিয়ে জিগাইলো,হুজুর আপনি তো অনেক দিন আর তাবলিকে আসেন না,কেন?

উত্তরে আল-মদিনা রেস্টুরেন্টের মালিক কাম কেশিয়ার কইলো,

আরে এখন তাবলিগ করা, আর আমলীগ(আ.লীগ) করা সমান কথা।তুমি সারাদিন তাবলিগ করবা আর ভোট দিবা গিয়ে আমলীগরে, তালি কি সিডা তাবলিক করা হইলো? আমলীগ বিধর্মীর আইন পাশ করতাছে,অথচ এদের মুখে আল্লার নাম,শালা মুনাফেকের দল কুহানকার।

পতন

সময় যেন থেমে গেছে এই মুহূর্তে। থেমে গেছি আমিও... পৃথিবীটা শুধু ধীরে ধীরে স্থির আমাকে ফেলে উঠে যাচ্ছে উপরে। গাছপালা, পাহাড়ের খাড়া দেয়াল, সুনীল আকাশ... মহাকালের নিয়ম ভেঙে কোথায় যাচ্ছে চলে সব!

August 2014
শনিবাররবিবারসোমবারমঙ্গলবারবুধবারবৃহঃবারশুক্রবার
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829