কালের মহাবিশ্ব।

কাঠ বাঙাল

একেবারে কাঠ-বাঙাল হবার সুবিধেটা কি জানো ;

সাদা কলারের ঘাম হলদে হয়ে গেলেও কিচ্ছু আসে-যায়না ;

আয়রণে জামার ভাঁজ তীক্ষ্ণ ভীষণ । ভেতরটায় কিন্তু কাদামাটির শুদ্ধ গন্ধ আমার ।

একদম কাঠ-বাঙাল আমি

কিটস আর জীবনানন্দ এক করে ফেলি ;

গুলিয়ে আঁখের গুড় হয়ে যায় রবীন্দ্রনাথে বারবার শেক্সপিয়র ।

কঠিন লাগে সব ;

জুতোর তলাটা একপাশ থেকেই ক্ষয়ে যায় প্রতিবার ;

মহাকালের মহাপ্রলয়

ড. আবু সাঈদ চায়ে শেষ চুমুক দিয়ে দোকানীকে জিজ্ঞেস করলেন- "চায়ের দাম কত?"

দোকানী অবাক হবার ভান করে চোখ কপালে তুলে বলল‚ "এইটা আপনি কি কইলেন স্যার? আপনার মতো বিখ্যাত মাইনষের কাছ থেইকা চায়ের দাম নিমু? আপনি ভাবতে পারলেন?"

সহীহ মগজ ধোলাই

বাঁশের কেল্লা’ নামে জামায়াত-শিবিরের আন্তর্জালিক তৎপরতামূলক একটি প্রচারমাধ্যমের অপপ্রচার দেখে ‘বাঁশের কেল্লা’ কনসেপ্টটির সুলুক সন্ধানে প্রবৃত্ত হই। বাঁশের কেল্লা আসলে কী? তারা এই ধারণাটা কোত্থেকে পেল? অনুসন্ধানটা চলছিল ধীর গতিতে। মোটামুটি পঠন-পাঠনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো এই মধ্যরাতে।

রিটার্ন অন ইনভেস্টমেন্ট!

আমি একটু হিসেবি টাইপের মানুষ। শুধু যে টাকা পয়সা খরচের বেলায় হিসেবি তা নয়। সব ব্যাপারেই আমি বেশ হিসেবি। কয়েকটা উদাহরন দেই তাহলে বিষয়টা ভালো মত বুঝতে পারবেন।

১। বন্ধু-বান্ধবের সাথে আড্ডা দেয়ার চেয়ে আমার কাছে বাসায় বসে বই পড়া বা ইন্টারনেট সার্ফিং করা বেশী লাভজনক মনে হয়। কারন এতে জ্ঞান বাড়ে যা আমি আমার কর্মজীবনে প্রয়োগ করে লাভবান হতে পারি।

নগর পুড়লে, দেবালয় কি রক্ষা পাবে?

প্রায় একই সময়ে অস্ট্রেলিয়ার পার্থে আমরা তিনটি ধর্মীয় উৎসব উদযাপনের সুযোগ পেয়ে গেলাম। শারদীয় দুর্গা পূজা, ঈদুল আযহা আর প্রবারণা পূর্ণিমা। যারা স্বেচ্ছা নির্বাসনে থাকেন, তারা জানেন সপ্তাহান্তে উৎসবগুলো পড়লে কেমন আনন্দ হয়! প্রায়.... তেমন আনন্দই হল আমার। কারণ বউ গেছে দেশে।

অতীত দেখা।

আজব রহস্যাগার

আজব রহস্যাগার

এধারে ছিল কাঁশবন ঘেরা এদোডোবা এক,
ঝর্ণাধারা ছিল এক ওধারে। ঝর্ণার জল এলো
এদোডোবা পাড়ে, আকাশ এলো কি নেমে
ধরার ‘পরে? শূণ্যগর্ভ হলো স্থির মঙ্গলে
গড়ে তুলবে এক আজব নগর – জীবনের রসায়ন,
আগামীর ভিত। বিজ্ঞানী তার্কিক তাবত ধর্মতত্ববিদ
গলদঘর্ম সদা খুঁজে ফিরে তীর রহস্যাগারের।

এখানে তার্কিক, ওখানে বিজ্ঞানী সদা তৎপর
কেবল ধর্মগুরু করে ঈশ্বরে নির্ভর।

বিবর্ণ বিষাদ

বিবর্ণ বিষাদ (গল্প)

মাহবুবুল আলম

কাশেম সাহেব আজ একরকম আয়েস করেই টিভি দেখতে বসেছেন। বাসায় একা। তাই অন্যান্য দিনের মতো রিমোট নিয়ে কাড়াকাড়ি নেই। স্ত্রী-পুত্র-কন্যারা সবাই বেড়াতে গেছে। ছেলে-মেয়েরা গেছে বন্ধুবান্ধদের বাসায় বা অন্য কোথাও আড্ডা দিতে; আর স্ত্রী আয়েশা চলে গেছে ‘পল্লবী’ বাবার বাড়িতে। ছেলে-মেয়েরাও হয়তো ঘোরাঘুরি শেষ করে নানার বাড়িতেই চলে যাবে। ফিরতে ফিরতে সে অনেকরাত।

এখানেই সব রঙ

চলে যাচ্ছে ও । ছেলেটা অবিকল আগের মতোই হাঁটে । কোন পরিবর্তন নেই । দুই হাত প্যান্টের দু’পকেটে ঢুকিয়ে মাথাটা একটু নিচু করে । রুনতি দেখছে আর ভাবছে , এভাবেই তো হাঁটত ও , যখন একসাথে পাশাপাশি হাঁটত তখনও । রিজু সব সময়ই নিজেকে কেমন গুটিয়ে রাখত । এই যে ,রুনতিকে যখন সে প্রায়ই বলত ভালোবাসার কথা , রুনতির মনে হত , বলে বেচারা নিজেই লজ্জা পাচ্ছে ।

নির্ভর

জুতো জোড়ায় দাঁড়িয়ে থাকি;
ফিতে বা রেক্লিন-ইলাস্টিক এর গিঁটে বাঁধা পায়ের পাতা ; পায়ের উপর থাকে চিন্তার মস্তিষ্ক ;
জুতো জোড়ায় বড় বিশ্বাস আমার ।

আমার ভিতে কোন মাটি নেই, রক্ত নেই ;
আবেগ ধোয়া কাম নেই -
আকাশ নেই, কথা নেই, শরীর নেই,
কবিতার আর গান নেই ;
জুতো জোড়ার প্রায় ক্ষয়ে যাওয়া শুকতলি ।

ছেলেবেলাকায় মিষ্টির দোকানে ঝোঁক বেশী যেত;
কাঁচের ওপাশের লোভ আমার সেই পাঁচ বছর বয়সের -

জলছবি হব

জলছবি হব

একদিন এই আমি; আত্মার অবসরে,
পেলাম কিছু খোলা দানা কবিতার সরোবরে
চিকচিকে বালিকণা মুখ তুলে হাসে
সময়ের আরশি হাতে ছুটে চলে মহাকাল
মানবজমিনে, হৃদয়ের তীর ধরে।

কাল-যুগ-মাস ব্যপী যাযাবর স্রোতে
শুধু অবগাহন, সময়-সিম্ফনী ধরে একই পরিভ্রমণ
মিটেনা তো সখ, মিটে না আয়েস
স্মিতধা মলিন অধরে স্নিগ্ধ বিকেল হাতে
কূল ধরে হাঁটি সাগরের মোহনায়।

গাঙশালিকের হারানো পালক খোঁজে

জীবের প্রেমের কিছু কথা

শুধু কি মানুষ? প্রত্যেক জীবের হৃদয়ে যে প্রেম আসে। প্রত্যেক জীবের যে বিষেশ এক ব্যক্তি থাকে। এই বিশ্বে পশু, পাখি, মানুষ সবাই যে যার যার প্রেমের লিলায় মেতে আছে। আমি যদি নিজেকে প্রশ্ন করি হে আমি, কোথায় হতে এসেছি? আমিও যে এক পবিত্র ভালোবাসার সুফল। আমার বাবা মায়ের ভালোবাসার ফল আমি। সেখানে আমি এক বালিকার প্রেমে পরেছি তা বলা কি কোন সন্দেহ থাকা উচিত?

কর্মক্ষম মানব সম্পদই এখন বাংলাদেশের বড় সম্পদ

মাহবুবুল আলম

'জীবনের গল্প'

অনেক দিন পর আজ মনে হল আপনাদের সাথে কিছু ছবি শেয়ার করি...

ছবি গুলো আমাদের দেশের মেহেনতি মানুষের প্রতিদিনকার চলমান জীবনের... যেহেতু আমি ফটোগ্রাফির মাঠে পাকা খেলার নই। তাই কাচা হাতে তোলা ছবিগুলোতে ভুলত্রুটি থাকলে পরামর্শ আশা করছি।

১।

২।

October 2014
শনিবাররবিবারসোমবারমঙ্গলবারবুধবারবৃহঃবারশুক্রবার
45678910
11121314151617
18192021222324